Categories

ওয়েব ডিজাইন কি? ওয়েব ডিজাইন শেখার পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন।

ওয়েব ডিজাইন কি? এমন প্রশ্ন একজন জ্ঞানপিপাসু অনলাইন আয় প্রত্যাশী হিসেবে আপনার মনের মধ্যে আসা কিন্তু অস্বাভাবিক নয়!

ওয়েব ডিজাইন হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটের বাহ্যিক অবয়ব তৈরী করা। বর্তমান সময় অনলাইন থেকে আয়ের যে সকল মাধ্যম রয়েছে ওয়েব ডিজাইন তাদের মধ্যে অন্যতম একটি।

বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে একজন দক্ষ ওয়েব ডিজাইনারের রয়েছে প্রচুর চাহিদা।

ওয়েব ডিজাইন কাকে বলে? এর জন্য কি কি শিখতে হবে? কীভাবে শিখবেন? কত দিন লাগতে পারে? কোথায় শিখবেন? এসব প্রশ্ন যদি আপনার মনের দরজায় কড়া নাড়ে তো পোস্টটি আপনার জন্য। এক্সপার্টরা দূরে থাকলেই ভাল হয়।

সূচীপত্র

ওয়েব ডিজাইন (Web Design)

কি কি শিখতে হবে? (What to Learn?)

এইচটিএমএল (HTML)

ফটোশপ বেসিক (Photoshop Basics)

সিএসএস (CSS)

জাভাস্ক্রিপ্ট (Javascript)

কিভাবে শিখবেন? (How to Learn?)

কিছু ওয়েবসাইটের তালিকা যা আপনার ওয়েব ডিজাইন শেখাকে প্রাণবন্ত করে তুলবে

কি লাভ হবে ওয়েব ডিজাইন শিখলে? ওয়েব ডিজাইন শেখার গুরুত্ব

কোনটা শিখবো? ডিজাইন নাকি ডিভেলপমেন্ট?

ওয়েব ডিজাইন (Web Design)

একটি ওয়েবসাইট দেখতে কেমন হবে, এর কনটেন্টগুলো যেমন টেক্সট, ফাইল, ছবি, অডিও, ভিডিও ওয়েবসাইটের কোথায় কোন অংশে প্রদর্শণ করানো হবে তার জন্য একটি বাহ্যিক অবকাঠামো তৈরী করাকেই মূলত ওয়েব ডিজাইন বলা হয়।

সংক্ষেপে বলতে গেলে, বিভিন্ন কনটেন্ট সমৃদ্ধ একটি ওয়েবপেজের নান্দনিক এবং শৈল্পিক বিকাশই হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন।

বুঝলেন না তো! চলুন বুঝিয়ে দিচ্ছি…

যদি আপনাকে প্রশ্ন করি আপনি এখন কি পড়ছেন? নিশ্চয় বলবেন যে ‘‘ওয়েব ডিজাইন কি? ওয়েব ডিজাইন শেখার পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন’’ শীর্ষক পোস্টটি পড়ছি। এই যে আপনি পোস্টটি পড়ছেন এটি কিন্তু এই ওয়েবসাইটের ‘‘টিউটোরিয়াল’’ নামক ক্যাটাগরির ‘ওয়েব ডিজাইন’ অংশে রয়েছে।

এমনি করে একটি ওয়েবসাইটের প্রতিটা এলিমেন্টকে সুবিন্যস্ত করে সাজানোর নামই হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন।

আর যারা ওয়েবসাইট ডিজাইনের কাজ করে থাকেন তাদেরকে ওয়েব ডিজাইনার বলে। আর তাদের পেশাকেই মূলত ওয়েব ডিজাইনিং বলা হচ্ছে।

বর্তমান সময় বড় বড় কোম্পানি থেকে শুরু করে ছোট ছোট কোম্পানি এমনকি ব্যক্তি পর্যায়েও ওয়েবসাইট তৈরী করা হচ্ছে।

প্রতিনিয়ত অনলাইনে প্রায় ১০ লক্ষ্ নতুন ওয়েবসাইট প্রতিদিন যুক্ত হচ্ছে। এটা কি ছোট্ট একটি বিষয়? অনেক ব্যাপক পরিসরের বিষয় হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন।

তবে একজন ওয়েব ডিজাইনার এর প্রথম এবং প্রধান কাজ হল ওয়েব টেমপ্লেট তৈরী করা।

কি কি শিখতে হবে? (What to Learn?)

ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা কিংবা বিশেষ কোন Qualification এর প্রয়োজন পড়বে না।

কেননা যে কেউ চাইলেই তার ইচ্ছাশক্তির বলে ওয়েব ডিজাইনিং শিখতে পারে।

তো বন্ধুরা চলুন দেখি একজন ওয়েব ডিজাইনার হতে গেলে আপনাকে কি কি শিখতে হবে?

একজন ওয়েব ডিজাইনার হওয়ার জন্য আপনাকে যা শিখতে হবে-

ফটোশপ বেসিক (Photoshop Basics)

এইচটিএমএল (HTML)

সিএসএস (CSS)

জাভাস্ক্রিপ্ট (Javascript)

এইচটিএমএল (HTML)

এইচটিএমএল এর পূর্ণরূপ হচ্ছে Hyper Text Markup Language যা কোন প্রোগ্রামিং ভাষা নয়, একটি মার্কআপ ভাষা।

একটি ওয়েবসাইটের গঠন বলতে গেলে কঙ্কাল হচ্ছে এই এইচটিএমএল। আর এটি অত্যন্ত সহজ একটি ভাষা এবং যে কেউ সহজেই এই ভাষা শিখতে পারে।

তবে একজন ওয়েব ডিজাইনার হতে গেলে আপনাকে অবশ্যই এইচটিএমএল শিখতে হবে এবং এটি ছাড়া আপনি কখনই একজন ওয়েব ডিজাইনার হতে পারবেন না।

ফটোশপ বেসিক (Photoshop Basics)

একজন ওয়েব ডিজাইনার হতে গেলে আপনাকে অবশ্যই ফটোশপের বেসিক জানতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে একটি পিএসডি (PSD) ফাইল ক্রিয়েট করতে হবে।

পরে তাকে এইচটিএমএল এ কনভার্ট করতে হয়। এছাড়া ফটোশপের টুকিটাকি কাজ যেমন, ছবির সাইজ নির্ধারণ, ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ শিখতে হবে।

সিএসএস (CSS)

সিএসএস এর পূর্ণরূপ হচ্ছে Cascading Style Sheet. এইচটিএমএল একটি ওয়েবসাইটের Structure তৈরী করলেও এর ডিজাইন এবং স্টাইল দেয়ার জন্য সিএসএস এর প্রয়োজন পড়ে।

একজন ওয়েব ডিজাইনার হতে গেলে আপনাকে অবশ্যই সিএসএস শিখতে হবে। কেননা ওয়েবসাইটকে সুন্দর এবং দৃষ্টিনন্দন করতে সিএসএস এর কোন বিকল্প নেই।

জাভাস্ক্রিপ্ট (Javascript)

Javascript একটি ক্লায়েন্ট সাইড স্ক্রিপ্ট ল্যাঙ্গুয়েজ (Client Side Script Language)। ওয়েবসাইটকে ইন্টারঅ্যাক্টিভ (Interactive) করার জন্য এইচটিএমএল, সিএসএস এর পাশাপাশি আপনাকে জাভাস্ক্রিপ্ট শিখতে হবে।

আপনি প্রথমে এইচটিএমএল, তারপর সিএসএস এবং সবশেষে জাভাস্ক্রিপ্ট এভাবে পর্যায়ক্রমে শিখুন। তবে যদি উপর্যুক্ত তিনটি বিষয় ভালভাবে রপ্ত করে থাকেন তো আমি বলব আপনি একজন ওয়েব ডিজাইনার।

আর ও পড়ুন সেরা সোর্স কোড এডিটর। প্রোগ্রামিং এ আপনাকে যা জানতেই হবে।

কিভাবে শিখবেন? (How to Learn?)

আপনার এলাকার ভালমানের কোন আইটি প্রতিষ্ঠান থেকে আপনি কোর্স করে ওয়েব ডিজাইন শিখতে পারেন

অথবা অনলাইন থেকে কোন কোর্স ক্রয় করেও আপনি শিখতে পারেন ওয়েব ডিজাইন। তবে ভিডিও কোর্স ক্রয় করার পূর্বে কোর্সগুলো সংক্ষিপ্ত অথচ একইসাথে সুন্দর, স্পষ্ট, যথেষ্ট পরিমাণ তথ্য সমৃদ্ধ কি না যাচাই করে নিবেন।

আর তা না হলে অনলাইনের বিভিন্ন রিসোর্স যেমন, গুগল (Google), ইউটিউব (Youtube), বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন, ফেইসবুক (Facebook), টুইটার (Twitter) এর মাধ্যমেও গড়ে নিতে পারেন আপনার সপ্নের ক্যারিয়ার ওয়েব ডিজাইন।

কিছু ওয়েবসাইটের তালিকা যা আপনার ওয়েব ডিজাইন শেখাকে প্রাণবন্ত করে তুলবে

w3school – ওয়েবসাইট লিংক https://www.w3schools.com

Codecademy – ওয়েবসাইট লিংক https://www.codecademy.com

Youtube – ওয়েবসাইট লিংক https://www.youtube.com

Kananacademy – ওয়েবসাইট লিংক https://www.kananacademy.org

Coursera – ওয়েবসাইট লিংক https://www.coursera.org

Edx – ওয়েবসাইট লিংক https://www.edx.org

তবে এখান থেকে w3school এবং Youtube কে সঙ্গি বানাতে পারলেই আপনার ওয়েব ডিজাইন শেখা ৯০% এগিয়ে যাবে।

কি লাভ হবে ওয়েব ডিজাইন শিখলে? ওয়েব ডিজাইন শেখার গুরুত্ব

বর্তমান যুগকে ওয়েবের যুগ বললেও খুব একটা ভুল বলা হবে না! কেননা ছোট থেকে বড় প্রায় সকল প্রতিষ্ঠান কিংবা কোম্পানি তাদের নিজেদের একটি অনলাইন ওয়েব পোর্টাল চালু করছে।

Yahoo এর করা একটি জরিপ থেকে জানা যায় যে শুধুমাত্র আমেরিকাতেই প্রতিমাসে ১৬ মিলিয়নেরও অর্থাৎ ১ কোটি ১৬ লাখেরও বেশি ওয়েবসাইট প্রতিনিয়ত অনলাইনে যুক্ত হচ্ছে।

এর প্রায় ৭০% এরও বেশি করা হয়ে থাকে প্রোফেশনাল ওয়েব ডিজাইনার হায়ার করে যার মার্কেট ভেল্যু প্রায় ২০.০১ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশী টাকা হিসেবে তা দাঁড়ায় প্রায় ১৬ হাজার ৮০০ শত কোটি টাকার সমান।

আবার Indeed.com এর দেয়া এক তথ্যানুযায়ী, একজন ওয়েব ডিজাইনারের বাৎসরিক গড় বেতন প্রায় ৬০,১৮২ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশী টাকায় যা প্রায় ৪,৮১৪,৫৬০ টাকা, প্রতি মাস হিসেবে তা দাঁড়ায় ৪ লক্ষ টাকা প্রায়!!

এখানে কাজের কোন শেষ নেই বরং ওয়েব ডিজাইনারের রয়েছে প্রচুর সংকট। তাই আপনি যদি একজন ভালমানের ওয়েব ডিজাইনার হতে পারেন তো আমি গ্যারান্টি দিচ্ছি আপনাকে পিছন ফিরে তাকাতে হবে না।

তাহলে একবার ভাবুন তো, কেমন হতে পারে এর ভবিষ্যৎ? এর নির্দিষ্ট কোন গন্ডি খুঁজে পাওয়া অসম্ভব এমনই বিশাল একটি সেক্টর হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন কিংবা ডিভেলপমেন্ট।

দিলেন তো খটকা লাগিয়ে ওয়েব ডিজাইনের গীত গাইতে গাইতে হঠাৎ ডিভেলপমেন্ট আসলো কোথা থেকে?

তাহলে

কোনটা শিখবো? ডিজাইন নাকি ডিভেলপমেন্ট?

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন যারা ওয়েব ডিজাইন এবং ডিভেলপমেন্টকে একই বিষয় বলে গোলমাল পাকিয়ে ফেলেন। আসলে এ বিষয় দুটি সম্পূর্ণ আলাদা।

পার্থকটা কোথায়? চলুন দেখি…

ওয়েব ডিজাইন  ওয়েব ডিভেলপমেন্ট

এটি একটি ওয়েবসাইটের ফ্রন্টইন্ড (Front-end) এর বিষয়।              ওয়েব ডিভেলপমেন্ট হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটের ব্যাকইন্ড (Back-end) এর বিষয়।

এটি হল একটি ওয়েবসাইটের অবকাঠামো তৈরী করা বা লেআউট ডিজাইন করা।  লেআউট থেকে কোডিং করে ওয়েবসাইটে রূপ দেয়া হচ্ছে ওয়েব ডিভেলপমেন্ট।

ওয়েব ডিজাইনে কোন ওয়েব এপ্লিকেশন যেমন, লগিন সিস্টেম, ফাইলস আপলোড এবং ডাটাবেজে সংরক্ষণ, ইমেজ ম্যানিপুলেশন ইত্যাদি থাকে না।  ওয়েব ডিভেলপমেন্ট এ ওয়েব এপ্লিকেশন যেমন, লগিন সিস্টেম, ফাইলস আপলোড করে ডাটাবেইজে সংরক্ষণ, ইমেজ ম্যানিপুলেশন ইত্যাদি থাকে।

টেক্সট, ছবি অর্থাৎ যাবতীয় এলিমেন্ট ওয়েবসাইটের কোথায় কোন অংশ দেখানো হবে তা নির্ধারণ করা যা ডিজাইন সংশ্লিষ্ট বিষয়।    টেক্সট, ছবি অর্থাৎ যাবতীয় এলিমেন্ট ওয়েবসাইটে কিভাবে ম্যানিপুলেশন হবে তা নির্ধারণ করা যা ডিভেলপমেন্ট সংশ্লিষ্ট বিষয়।

এটি হচ্ছে ফটোশপ বা ইলাস্ট্রেটর দিয়ে কোন ওয়েব টেমপ্লেট তৈরী করা   টেমপ্লেটকে কোডিং এর মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ ডায়নামিক ওয়েসাইটে রূপ দেয়া।

ডিজাইনের বিষয়টি সম্পূর্ণ স্ট্যাটিক।        ডিভেলপমেন্ট এর বিষয়টি সম্পূর্ণ ডায়নামিক।

তো প্রিয় পাঠক বুঝে তো গেলেন, যে বিষয় দুটি সম্পূর্ণ আলাদা। বর্তমান সময়ে ওয়েব ডিজাইন শেখার পাশাপাশি আপনাকে অবশ্যই ডিভেলপমেন্ট শিখতে হবে। নতুবা প্রতিযোগিতামূখর অনলাইনে নিজেকে সঠিকভাবে দন্ডায়মান রাখা আপনার পক্ষে সম্ভব হবে না।

ওয়েব ডিভেলপমেন্ট শেখার জন্য আপনাকে আলাদা করে সব শেখার দরকার পড়বে না। আপনার ওয়েব ডিজাইনে শেখা ভাষাগুলোর সাথে শুধুমাত্র পিএইচপি (PHP-Hypertext Preprocessor) শিখলেই হবে।

আরও পড়তে পারেন কিভাবে একটি ওয়েবসাইট তৈরী করা যায়?

সুতরাং শুভ হউক আপনার পথচলা, হয়ে যাক ওয়েব ডিজাইনে সফল সাধনা। ভাল থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button